শুক্রবার, ১৯ অক্টোবর ২০১৮, ০৫:৩৫ অপরাহ্ন

স্বাগতমঃ-
দৈনিক টেকেরহাট পত্রিকার ওয়েব সাইটে আপনাকে স্বাগতম মাদারীপুর এবং পার্শ্ববর্তী জেলার সংবাদ পেতে আমাদের সাথেই থাকুন।
সর্বশেষ সংবাদঃ-
রাজৈরে কলেজ শিক্ষকের উপর হামলাকারীদের গ্রেফতার ও বিচারের দাবীতে মানববন্ধন মাদক নির্মূল না হওয়া পর্যন্ত যুদ্ধ চলবে শিবচরে আনন্দ র‌্যালী ও আলোচনা সভা মাদারীপুরে ট্রাকের চাপায় শিশু নিহত মাদারীপুরে আনন্দ র‌্যালী ও আলোচনা সভা মাদারীপুরে র‌্যাব ৮ এর অভিযানে বিপুল পরিমান মাদকসহ ওয়েলকাম পার্টির এক সক্রিয় সদস্য গ্রেফতার বাংলাদেশ উন্নয়নশীল রাষ্ট্র হিসেবে স্বীকৃতি প্রদান উপলক্ষে,রাজৈরে বর্ণাঢ্য আনন্দ র‌্যালী ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত (ভিডিও সহ) স্বল্পোন্নত দেশের স্ট্যাটাস হতে বাংলাদেশের উত্তরনের যোগ্যতা অর্জনের ঐতিহাসিক সাফ্যল্য নিয়ে জেলা প্রশাসনের সংবাদ সম্মেলন (ভিডিও সহ) শিবচরে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের অপরাধে ৫ জনকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদন্ড, ৪ টি ড্রেজার ধ্বংশ করেছে ভ্রাম্যমান আদালত শ্রীনদীতে ধর্ষণ মামলার স্বাক্ষীরাই মামলার বিষয়ে জানেন না,মিথ্যা মামলায় গ্রামছাড়া আসামীর পরিবার
থানায় আসামী নির্যাতন:ওসিসহ ৮ জনের বিরুদ্ধে মামলায় পুলিশ সুপারকে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ

থানায় আসামী নির্যাতন:ওসিসহ ৮ জনের বিরুদ্ধে মামলায় পুলিশ সুপারকে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ


Madaripur (Oc Kripa Sindhu Bala) Pic.1

সাগর হোসেন তামিমঃথানা হাজতে ৯ আসামীকে নির্যাতনের অভিযোগে মাদারীপুরের কালকিনি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কৃপা সিন্দু বালাসহ ৮ জনের বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলায় আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দিয়েছে আদালত। সোমবার বেলা ৪টার দিকে মাদারীপুরে চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক মো. জাকির হোসেন এই আদেশ দেন।

মামলার এজাহারে বাদী জানান, স্থানীয় দ্বন্দ্বের জের ধরে প্রায় এক বছর আগে নুরু মৃধার ছেলে কবির মৃধার চোখ উপরে ফেলা হয়। এই ঘটনায় কালকিনি থানায় ওই এলাকার ইউপি চেয়ারম্যানসহ প্রভাবশালী কয়েকজনের বিরুদ্ধে একটি মামলা হয়। সেই মামলা আপোস মিমাংমার প্রস্তাব দেয়া হয়। কিন্তু তাতে রাজি না হওয়ায় মামলা তুলে নিতে কালকিনি থানার ওসি কৃপা সিন্দু, কবির মৃধা, ও তার ভাই ইউপি সদস্য খবির মৃধাসহ ৯ জনকে আটক করে নির্যাতন চালায়।

মাদারীপুর জজ কোর্টের পাবলিক প্রসিকিউটর এ্যাড. এমরান লতিফ জানান, এই ঘটনার বিচার দাবী করে চীফ জুডিসিয়াল আদালতে রবিবার দুপুরে মামলা দায়ের করলে চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রিট মো. জাকির হোসেন মামলাটি গ্রহন করে। পরে সোমবার বেলা ৪টার দিকে বিচারক মাদারীপুর পুলিশ সুপার মোহাম্মদ সরোয়ার হোসেনকে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দেন।

উল্লেখ্য, মামলার অন্য আসামীরা হচ্ছে কালকিনি থানা ওসি তদন্ত হারুন অর রশিদ, খাসেরহাট তদন্ত কেন্দ্রর তদন্ত ওসি মহিদুল ইসলাম, এসআই বিল্লাল হোসেন শিকদার, এএসআই রাজিবুল ইসলাম। এছাড়া আউলিয়ারচর গ্রামের রশিদ মুন্সি, সুমন বেপারী, রাজন বেপারীকেও আসামী করা হয়েছে। মামলা পরিচালনা করেন মাদারীপুর আইনজীবী সমিতির সভাপতি এ্যাড. ওবায়দুর রহমান খান।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




Development By:- 7 INFO TECH